টুকরো চিন্তা

টুকরো চিন্তা

By In undefined On 4/7/2020




 

 

কথা হচ্ছিল ভাগ্নের সাথে। জিজ্ঞেস করলাম, ‘গেলি না আন্দোলনে?’

 

‘বাসা থেকে এলাউ করলে না!’ নীল সাদা চতুষ্কোণ বাক্সে কিশোরসুলভ ক্ষোভ ফুটে উঠল কালো হরফে।

 

গত কয়েকদিন ধরে অনলাইনের জগতে ঢূ মারলেই চোখে ঝাপসা দেখছি। উঁহু, চক্ষু
 দৃষ্টি হয় নাই ক্ষয়। নীল, সবুজ, খয়েরী রঙা ইউনিফর্ম পরিহিত এক একজন 
সাংঘাতিক বীরবাচ্চাদের কান্ড কারখানা দেখছি আর নিদারুণ আবেগে খাবি খাচ্ছি। 
আহা, যদি নেমে যেতে পারতেম রাজ পথে! যা হোক, যা হবার নয় তা নিয়ে ভেবে কি 
লাভ।

 

বরঞ্চ ভাবি কতটা নির্ভীক, তেজস্বী হলে এমন বুক চিতিয়ে এত বিপদ-ব্যাঘাত 
ঠেলে হনহনিয়ে সামনে আগাতে পারে। ছবিতে দেখলাম আশাহীন মানুষের মনে মলমের 
প্রলেপ দেয়ার সাথে সাথে রাস্তার বুকেও ইট দিয়ে মেরামত করছে তারা। 
নিন্দুকেরা অবশ্য বলে, বটে, এ আর কদিনের খেলা! দু’দিন হোক না পার, সব হবে 
সারা।

 

তবে সত্যি বলতে কি, এক দেশের পরিকাঠামো, সমাজের নীল নকশা আমূল বদলে ফেলা
 অসম্ভব। বদলের জোয়ার এসেছে, এটা ভাবনার খোরাক। ধরে রাখতে পারব কিনা, এটা 
পরের বিষয়। ধরে রাখতে চাই নাকি, এটা সবচেয়ে অর্থবহ চিন্তার ইশ্যু হতে 
পারে এ সময়ে।

 

যোজন যোজন মাইল দূরে শাদাদের দখল করা এক দেশের শহরগুলোতে দেখেছিলাম 
অদ্ভুত এক দৃশ্য। সেখানকার স্থানীয় পলিনেশিয়ান কিশোর কিশোরীরা স্কুলে 
যেতে ইচ্ছুক না। বাবা মায়েরাও মোটামুটি অপারগ, জোর করলেই ঠুস করে পুলিশে 
ফোন করে বলবে, হ্যালাউউ, আমার বাবা মা আমাকে এবিউস করছে, তোমরা একটু আসবে?

 

এমতাবস্থায় পিঠে খান কতক বেতের বাড়ি দেয়ার জন্য হাত নিশপিশালেও 
কিচ্ছুটি করার নেই। চোখের সামনে দিব্যি সিগারেট, গঞ্জিকা ফুঁকবে 
ম্যাকডোনাল্ড খেয়ে খেয়ে স্থূলকায় হতে থাকা কিশোর কিশোরীর দল, আর অসহার 
বাবা মা’র সেসব জোগান দিতে দিতে নাভিশ্বাস উঠে যাবে। মাঝ থেকে শাদারা ধাঁই 
ধাঁই করে পড়ালেখা করে, চোখে চশমা এঁটে রাজনীতির তাবড় তাবড় পদ দখল করে 
বসে আছে। তাদের ছেলেমেয়েরা পড়ালেখা গুলে খেয়ে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা যে 
কোন প্রতিষ্ঠানের, আর হাবা গোবা পলিনেশিয়ানরা নিচু পদে গতরে খাটছে। হপ্তা 
শেষে আকণ্ঠ সুরা পান করেই তারা খুশী। সুক্ষ বুদ্ধির চাল একেই বলে।

 

একটা দেশকে চিরতরে ঠুঁটো জগন্নাথ বানাতে খুব বেশী কিছু লাগে না মনে হয়।
 সবার হাতে হাতে বইয়ের বদলে মুঠোফোন আর গেমিং কনসোলই যথেষ্ট। সাথে যদি 
গঞ্জিকা হয় সহজলভ্য, আর কি লাগে? আর, ইয়ে, বাকি সব কিছু এডিট আর ডিলিটের 
খেলা। যা যা দেখি, সবই লাগে ভেলকি, বেমালুম ভুলে যাই ভাবনার খেই।

 

ভাবুক,

মডেস্ট বিডি এডিটর ডেস্ক

Continue Shopping Order Now